সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:০৪ পূর্বাহ্ন

একুশের বাণী :
দৈনিক একুশের বাণী একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা , আমরা দীর্ঘ ২০ বছর যাবৎ সুনামের সহিত দেশের প্রত্যেকটি প্রান্ত থেকে মুহুর্তের খবর এনে তুলে ধরি আপনাদের সামনে , বর্তমানে আমরা ২০১৮ থেকে অনলাইন বার্সনেও আছি , আগামী ১০ দিনের মধ্যে ই-পেপারেও চলে আসবো । আমাদের তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করুন , সত্য-তা যত গভিরেই থাকুক , জাতির সামনে তুলে আনবো আমরা । আমাদের ইমেইল করতে পারেন এই ঠিকানায়ঃ- dailyekusherbani2013@gmail.com/dailyekusherbani2018@gmail.com ... মোবাইল বার্তা বিভাগঃ- 01635757744 গভ,রেজি নং- ডিএ-২০৩৫। বর্ষ-20
শিরোনাম :
সংবর্ধিত হলেন সন্দ্বীপ ইউপি নির্বাচনে নির্বাচিত ৪ সিবিও সদস্য সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই সদস্যের পরিবারে নগদ অর্থ বিতরণ করেন গাজীপুর কাচামাল আড়ৎদার মালিক গ্রুপ। সাংবাদিক সংগঠনসমুহকে নিবন্ধনের আওতায় আনতে মন্ত্রীপরিষদে আবেদন ‘প্রতি উপজেলায় ফায়ার স্টেশন নির্মাণ শেষ পর্যায়ে’ ‘২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ফের টিকা ক্যাম্পেইন’ কেশবপুরে দলিত জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়নে প্রশিক্ষণ সম্পন্ন শার্শা’য় অনুমতি বিহীন ক্লিনিকে অপারেশন ভিতিকর ছবি পোষ্ট করে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন পদ্মা সেতুতে কোন দুর্নীতি হয়নি তা আজ প্রমাণিত: মতিয়া চৌধুরী সাংবাদিক সংগঠনসমুহকে নিবন্ধনের আওতায় আনতে মন্ত্রীপরিষদে আবেদন বাঁশখালীতে ১১হাজার ৫ শত পিস ইয়াবা সহ ২ জন মহিলা ও একজন পুরুষ গ্রেফতার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি ৪র্থ দিনে ক্ষোভে ফুঁসছে গাজীপুরের মানুষ বাঁশখালীতে ১১ হাজার ৫শত পিস ইয়াবা সহ ২ জন মহিলা ও একজন পুরুষ গ্রেফতার ৭০ বছর পর মাকে দেখতে আসছেন হারানো ছেলে! নরসিংদী জেলায় করোনায় গরীব ও অসহায়দের পাশে মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন গাজীপুরের মেয়রকে আ.লীগ থেকে বহিষ্কারের দাবিতে তৃতীয় দিনে বোর্ডবাজার সহ মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি অর্জনে গাজীপুর মেয়রের আনন্দ মিছিল হাটহাজারীতে দেয়াল চাপায় কলেজ ছাত্র নিহত আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড নোয়াজিষপুর উপশাখা উদ্বোধন ‘আজাদ প্রোডাক্টস’ ফুটপাত থেকে শিল্পপতি হয়ে ওঠা সংগ্রামী জীবনের গল্প! সাতক্ষীরায় বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ী মুক্ত দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত
যশোরের শার্শা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে চলছে যেন লকডাউনেও করোনা ছড়ানোর মিলন মেলা

যশোরের শার্শা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে চলছে যেন লকডাউনেও করোনা ছড়ানোর মিলন মেলা

যশোর প্রতিনিধি :
যশোর জেলার শার্শা উপজেলা সাব-রেজ্রিস্ট্রার অফিসে মানুষের মাঝে নেই কোন সামাজিক দূরত্ব, লকডাউন উপেক্ষা করে মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি এতে আতঙ্কিত উপজেলার জনগণ।
যশোর জেলার সকল উপজেলা গুলোয় করোনা প্রকপ বেড়ে যাওয়ায় কঠোর লকডাউন থাকলেও। শার্শা সাব রেজিস্ট্রি অফিসের চিত্র রীতিমত চোখ কপালে উঠার উপক্রম।
২২ ও ২৩শে জুন (মঙ্গল-বুধবার) সরোজমিনে শার্শা সাব রেজিস্ট্রি অফিসের সামনে গিয়ে দেখা যায়, বিশাল এক জনগণের হাট, সকলে মিলে করোনা ভাইরাস উপেক্ষা করে যেন উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসে জমি ক্রয় বিক্রয়ের এক মহা উৎসবে মেতে উঠেছে। ২০ জন মিলে ১জন দলিল লেখককে ঘিরে রেখেছে এ যেন মেলার মাঠে সাপখেলা দেখার মত। কিছু লোকের মুখে মাস্ক থাকলেও বেশির ভাগ মানুষের মাস্ক মুখের নিচে, হাতে এবং কিছু লোক পকেটে নিয়ে ঘুরছেন।
সাব রেজিস্ট্রি অফিসের রাস্তার অপজিটে আছে মেলায় আগত লোকজনের জন্য আছে কয়েকটি খাবার হোটেল। সেখানে হোটেল বয় মাস্কবিহীন রাস্তার এপাশে এসে জনগণকে খাবার খাওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন।
শার্শা  সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের সাবরেজিষ্টার কার্যালয়ে ভিতর ঘুরেও দেখা গেল একই চিত্র। সরকার প্রদত্ত স্বাস্থ্যবিধি না মেনে এবং সামাজিক দূরত্বকে কোনো প্রকার তোয়াক্কা না করে। গায়ে গা লাগিয়ে চলছে মাস্ক বিহীন দলিল লেখা ও অন্যান্য কর্মকাণ্ড। সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের গেটেও মানুষের এত ভিড় যে পা রাখার জায়গা নেই। সকলে অফিস কক্ষের ভিতরে ঢোকার জন্য চাতক পাখির মত চেয়ে আছে এ যেন মেলায় রথ দেখার অধীর আগ্রহ।
অথচ খোদ যশোর জেলায় গত ২২শে মার্চ  ৫২৭ টি নমুনার মধ্যে ২৫৩টি নমুনা পরীক্ষার প্রাপ্ত ফলাফলে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) পজিটিভ, ১০ জনের মৃত্যূ খবর পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে শার্শা উপজেলায় আক্রান্তের হার অনেক বেশি। যথাযথ কর্তৃপক্ষ বিষয়টিকে আমলে না নিলে যেকোন সময়ে শার্শা কোভিড-১৯ হট-স্পটে পরিণত হতে পারে।
শার্শার কয়েকজন সচেতন নাগরিক বলেন, যেখানে শার্শা উপজেলা সহ পুরো জেলা লকডাউন সেখানে সাব-রেজিস্ট্রি খোলা রেখে প্রশাসন কি ফয়দা পাচ্ছে তা আমার বোধগম্য নয়।
এ ব্যাপারে সাব রেজ্রিস্ট্রারের ফোনে কথা বলার চেষ্টা করা হলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
এ বিষয়ে শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা বলেন, আসলে স্বাস্থ্যবিধি না মানার বিষয়টি আমার জানা নেই তবে আমি জানলাম এবং আমি এবিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেবো। যেহেতু আমাদের জেলা এবং উপজেলায় এখানে কঠোর লকডাউন চলছে সেহেতু আমি আমার উদ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলবো এটা বন্ধ রাখার জন্য। এদিকে অনেকে অভিযোগে জানান, এ যেন করোনা ছড়ানোর কেন্দ্র মেলা, এমনকি প্রশাসনের নাকের ডগায় এমন কর্মকাণ্ডের জনসমাগম ঘটছে আর উনি কিছুই জানেন না, যতসব দুর্বল জায়গায় করা হয় কঠোর আইন প্রয়োগের শাস্তির ব্যবস্থা। কয়েকজন সাধারন ব্যবসায়ী দোকান্দার ও জানান, আমরা আইনের শ্রদ্ধা রেখে দোকান বন্ধ রাখছি অথচ প্রভাবশালী ব্যক্তিরা থাকে ধরাছোয়ার বাইরে। এক দেশে আইনের দুই রকম প্রয়োগ এটা মেনে নেওয়া যায় না।

Comments

comments

Please Share This Post in Your Social Media

© 2018-2021, daynikekusherbani.com- All rights reserved.অত্র সাইটের কোন - নিউজ , ভিডিও ,অডিও , অনুমতি ছাড়া কপি/ অন্য কোথাও ব্যবহার করা দন্ডনীয় অপরাধ।
Design by Raytahost.com