সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন

একুশের বাণী :
দৈনিক একুশের বাণী একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা , আমরা দীর্ঘ ২০ বছর যাবৎ সুনামের সহিত দেশের প্রত্যেকটি প্রান্ত থেকে মুহুর্তের খবর এনে তুলে ধরি আপনাদের সামনে , বর্তমানে আমরা ২০১৮ থেকে অনলাইন বার্সনেও আছি , আগামী ১০ দিনের মধ্যে ই-পেপারেও চলে আসবো । আমাদের তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করুন , সত্য-তা যত গভিরেই থাকুক , জাতির সামনে তুলে আনবো আমরা । আমাদের ইমেইল করতে পারেন এই ঠিকানায়ঃ- dailyekusherbani2013@gmail.com/dailyekusherbani2018@gmail.com ... মোবাইল বার্তা বিভাগঃ- 01635757744 গভ,রেজি নং- ডিএ-২০৩৫। বর্ষ-20
শিরোনাম :
সংবর্ধিত হলেন সন্দ্বীপ ইউপি নির্বাচনে নির্বাচিত ৪ সিবিও সদস্য সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই সদস্যের পরিবারে নগদ অর্থ বিতরণ করেন গাজীপুর কাচামাল আড়ৎদার মালিক গ্রুপ। সাংবাদিক সংগঠনসমুহকে নিবন্ধনের আওতায় আনতে মন্ত্রীপরিষদে আবেদন ‘প্রতি উপজেলায় ফায়ার স্টেশন নির্মাণ শেষ পর্যায়ে’ ‘২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ফের টিকা ক্যাম্পেইন’ কেশবপুরে দলিত জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়নে প্রশিক্ষণ সম্পন্ন শার্শা’য় অনুমতি বিহীন ক্লিনিকে অপারেশন ভিতিকর ছবি পোষ্ট করে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন পদ্মা সেতুতে কোন দুর্নীতি হয়নি তা আজ প্রমাণিত: মতিয়া চৌধুরী সাংবাদিক সংগঠনসমুহকে নিবন্ধনের আওতায় আনতে মন্ত্রীপরিষদে আবেদন বাঁশখালীতে ১১হাজার ৫ শত পিস ইয়াবা সহ ২ জন মহিলা ও একজন পুরুষ গ্রেফতার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি ৪র্থ দিনে ক্ষোভে ফুঁসছে গাজীপুরের মানুষ বাঁশখালীতে ১১ হাজার ৫শত পিস ইয়াবা সহ ২ জন মহিলা ও একজন পুরুষ গ্রেফতার ৭০ বছর পর মাকে দেখতে আসছেন হারানো ছেলে! নরসিংদী জেলায় করোনায় গরীব ও অসহায়দের পাশে মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন গাজীপুরের মেয়রকে আ.লীগ থেকে বহিষ্কারের দাবিতে তৃতীয় দিনে বোর্ডবাজার সহ মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি অর্জনে গাজীপুর মেয়রের আনন্দ মিছিল হাটহাজারীতে দেয়াল চাপায় কলেজ ছাত্র নিহত আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড নোয়াজিষপুর উপশাখা উদ্বোধন ‘আজাদ প্রোডাক্টস’ ফুটপাত থেকে শিল্পপতি হয়ে ওঠা সংগ্রামী জীবনের গল্প! সাতক্ষীরায় বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ী মুক্ত দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত
সৎ সন্তানদের জালিয়াতি কোটি টাকার সম্পদ থাকলেও খেয়ে না খেয়ে অন্যের আশ্রয়ে মরিয়ম

সৎ সন্তানদের জালিয়াতি কোটি টাকার সম্পদ থাকলেও খেয়ে না খেয়ে অন্যের আশ্রয়ে মরিয়ম

যশোর প্রতিনিধি : যশোরের বেনাপোলে কোটি কোটি টাকার সম্পদ থাকলেও খেয়ে না খেয়ে অন্যের আশ্রয়ে রয়েছেন মরিয়ম নামে এক বিধবা নারী। ওয়ারীশ সনদের ফটোকপিতে জীবিত মরিয়ম বিবির নামে আগে মৃত লিখে জালিয়াতি করে, তার কোটি টাকার সম্পদ নিজেদের নামে করে নিয়েছে অন্য স্ত্রীর সন্তানেরা। নিজের সম্পদ ফিরে পেতে গত কয়েক বছর ধরে আদালতের দ্বারে দ্বারে ঘুর পাক খাচ্ছে তিনি। স্বামী মারা যাওয়ার পর অন্য স্ত্রীর সন্তানেরা তাকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। আশ্রয় নিয়েছে পরের বাড়িতে। মরিয়ম বিবি বেনাপোল পোর্ট থানার কাগজ পুকুর গ্রামের মৃত টেনাই মোড়লের স্ত্রী।
প্রতিবেশী আব্দুল জলিল সাংবাদিকদের জানান, টেনাই মোড়লের ৩ স্ত্রী। তিনি জীবিত থাকাবস্থায় দুই স্ত্রীর মৃত্যু হলে মরিয়ম বিবিকে বিয়ে করেন। ২০০৮ সালে টেনাই মোড়লের মৃত্যু হয়। প্রথম স্ত্রীর ঘরে ৪ ছেলে-মেয়ে থাকলেও শেষের ২ স্ত্রীর ঘরে কোন সন্তান ছিলো না। টেনাই মোড়লের মৃত্যুর কয়েকদিন পরেই প্রথম স্ত্রীর সন্তানেরা মরিয়ম বিবিকে স্বামীর ভিটে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ার পর আমার বাড়িতে আশ্রয় নেয়। টেনাই মোড়লের সন্তানেরা ২০১২ সালে বেনাপোল পৌরসভা থেকে একটি ওয়ারিশ সনদ নেন। মূল ওয়ারিশ সনদ ফটোকপি করে মরিয়ম বিবির নামের আগে মৃত লিখে তা আবার ফটোকপি করে। আর এই ওয়ারিশ সনদ নিয়ে তারা মরিয়ম বিবির সকল সম্পদ তাদের নামে নামজারি করে নেয়।
বেনাপোল পৌরভার মেয়র আশরাফুল আলম লিটন ঘটনাটি জানতে পেরে মরিয়ম বিবিকে জীবিত রয়েছে মর্মে একটি প্রত্যয়ন পত্র প্রদান করেন। তিনি সেটিসহ যাবতীয় তথ্য প্রমানাদি নিয়ে আদালতের আশ্রয় নেন মরিয়ম বিবি। আইনজীবি বছর দু’য়েকের মধ্যে তার জমি ফেরত পাবার আশ্বাস দেন। পরবর্তিতে সকল দলিল প্রমানাধি দেখে ২০১৯ সালে আদালত মরিয়ম বিবির পক্ষে রায় দেন। আদালত মরিয়ম বিবিসহ টেনাই মোড়লের সকল ওয়ারিশদের নামে জমি নামজারি করার জন্য টেনাই মোড়লের ওয়ারিশদের কাছে নোটিশ পাঠান। আদালতের নির্দেশ অমান্য করে টেনাই মোড়লের তিন ছেলে আলী হোসেন, নুর হোসেন ও রবিউল আদালতের কোনো নির্দেশ না পাওয়ার কথা বলে আদালতে পুনরায় আপিল করেন। কিন্তু আজ দুবছর পার হলেও এখনো তার কোন সুরাহা হয়নি। বরং প্রতিমুহুর্তে প্রথম স্ত্রীর সন্তানদের হুমকি ধামকিতে ভয়ে তটস্থ রয়েছে মরিয়ম বিবি। যার কারনে মরিয়ম বিবি হতাশ হয়ে পড়েছে। শুধু মরিয়ম বিবি নন আইনী কাজে সহায়তা করার জন্য প্রতিবেশি আব্দুল জলিলকেও নিয়মিত হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।
বৃদ্ধ মরিয়ম বিবি বলেন, আমার স্বামী টেনাই মোড়ল জীবিত থাকা অবস্থায় ভিটেবাড়ি থেকে আমার নামে ১০ কাটা জমি রেজিস্ট্রি করে দেন। তিনি মারা যাওয়ার পর আমার স্বামীর প্রথম স্ত্রীর সন্তানেরা আমাকে নানা ভাবে নির্যাতন করে ভিটে থেকে তাড়িয়ে দেয়। এখন প্রতিবেশী আব্দুল জলিলের জমিতে কুড়ে ঘর বেধে বাস করছি। ওয়ারিশ সুত্রে আমি সাড়ে ৬ বিঘা মতো জমি পাবো। যার বাজার মূল্য কোটি টাকার উপরে। সব কিছু থাকলেও আমি অর্থাভাবে নিজেই নিজের খাবার যোগাড় করতে পারছি না। জমি উদ্ধার করতে এখন আদালতের খরচ বহন করা আমার পক্ষে আর সম্ভব হয়ে উঠছে না।
বেনাপোল পৌরসভার কাগজ পুকুর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার আমিরুল ইসলাম জানান, টেনাই মোড়লের মোট জমির পরিমান প্রায় ১৬ একর। মৃত্যুর আগে তিনি তার তৃতীয় স্ত্রী মরিয়ম বিবির নামে ভিটে থেকে ১০ কাটা জমি রেজিস্ট্রি করে দেন। টেনাই মোড়লের মৃত্যুর পর তার ছেলেরা বেনাপোল ভূমি অফিসের তৎকালিন নায়েব আব্দুল মজিদ মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে পৌরসভার দেয়া ওয়ারিশ সনদ জালিয়াতি করে জীবিত মরিয়ম বিবিকে মৃত দেখিয়ে সকল জমি নিজেদের নামে নামজারি করে নেয় তারা। পরে সৎ মা মরিয়ম বিবিকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। মরিয়ম বিবি যে জীবিত আছে তার প্রত্যায়ন পত্র পৌরসভা কর্তৃক দেয়ার পর মরিয়ম বিবি আদালতে মামলা করেন। মামলার রায় মরিয়ম বিবির নামে আসলেও সন্তানেরা তার জমি বুঝিয়ে না দিয়ে আদালতে আবার আপিল করেছেন।

Comments

comments

Please Share This Post in Your Social Media

© 2018-2021, daynikekusherbani.com- All rights reserved.অত্র সাইটের কোন - নিউজ , ভিডিও ,অডিও , অনুমতি ছাড়া কপি/ অন্য কোথাও ব্যবহার করা দন্ডনীয় অপরাধ।
Design by Raytahost.com